রান্নার রেসিপি

কেক বানানোর রেসিপি। সুস্বাদু ময়দার কেক তৈরি করুন নিজেই।

সহজে কেক বানানোর রেসিপি শিখুন এবং ময়দা দিয়ে ঘরোয়া ভাবে অল্প খরচে ঝটপট কেক তৈরি করুন নিজেই। এই পদ্ধতি অনুসরণ করলে, এখন থেকে মাটির চুলায়, প্রেশার কুকারে এবং গ্যাসের চুলা সহ যে কোনো উপায়ে কেক বানাতে পারবেন। তো চলুন কেক তৈরির উপকরণ এবং চুলায় ময়দা দিয়ে কেক বানানো জানা যাক।

কেক বানানোর রেসিপি

  • প্রস্তুতির সময় : 5 মিনিট
  • রান্নার সময় : 30 মিনিট
  • অন্যন্য সময় : 5 মিনিট

মোট সময় : 40 মিনিট

পরিবেশন যোগ্য : ১ – ২ জন ভরপুর পেটে অথবা ৫ জন হালকা পারফেক্টলি।

  • রান্নার পদ্ধতি : সিদ্ধ করণ, ভাপ দেওয়া।
  • রন্ধন প্রণালী : বাঙালিয়ানা।
  • রন্ধন ঝামেলা : মুটামুটি সহজ।
  • প্রস্তুতের উপযুক্ত সময় : বছরের যেকোন সময়।
  • উত্তম আবহাওয়া : সকল মৌসুম।
  1. আহারের উত্তম সময় : (ব্রেকফাস্ট), (লাঞ্চ), (স্ন্যাক)।
  2. খাবারের স্বাদ : সাধারণ।

কেক তৈরির উপাদানসমূহ

  • ৩ কাপ ময়দা
  • ১.৫ চা চামচ বেকিং পাউডার
  • ১/২ চা চামচ লবণ
  • ১ কাপ লবণ ছাড়া মাখন, নরম (নরমাল ফ্রিজআপ করা হতে হবে।)
  • ২ কাপ চিনি (আপনার পছন্দ মতো কমবেশি দিতে পারেন।)
  • ৪ টি বড় ডিম
  • ২ চা চামচ ভ্যানিলা এসেন্স।
  • ১ কাপ দুধ, অথবা গুঁড়ো দুধ ২ চামচ পরিমাণ।
  • ১/২ মুঠো কিসমিস।
  • বাদাম (ঐচ্ছিক)।

ময়দার কেক প্রস্তুত প্রণালী

ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে ময়দার কেক বানানোর রেসিপি শিখুন
ভ্যানিলা এসেন্স দিয়ে ময়দার কেক বানানোর রেসিপি শিখুন

প্রথমেই ময়দার সাথে বেকিং পাউডার ভালোমতো মিক্স করে চেলে নিন।

 এবার ডিম ভেঙ্গে কুসুম আলাদা করে  অন্য পাত্রে রাখুন।  আরেকটি পাত্রে ডিমের সাদা অংশ বিটার দিয়ে ফোন তৈরি করুন।

এরপর ডিমের কুসুম,  তেল ও নরমাল ফ্রিজ আপকৃত মাখন এর সাথে চিনি মিশিয়ে ভালোমতো বিট করুন।

পর্যায়ক্রমে ভেরিনা এসেন্স ও গুরু দুধ যোগ করে পুনরায় মিক্স করুন।

এবার প্রথম ধাপের চেলে নেওয়া ময়দা মিশিয়ে দিন। তবে মনে রাখবেন ডিম ও ময়দার মিশ্রণের ক্ষেত্রে কখনোই ইলেকট্রনিক মিক্সার বা গিটার ব্যবহার করবেন না। তাহলে ফোম ভালো হবে না।

আরও পড়ুন ;  Delicious Banana Bread Recipe to Try Today

ময়দার কেক ফুলানোর জন্য ও দৃষ্টিনন্দিত রূপ দেওয়ার ক্ষেত্রে যখনই বিট করবেন,  একদিক থেকেই নাড়বেন। 

এরপর কিসমিস,  বাদাম, ( মোরব্বা)  এ সকল উপাদানের গায়ে অল্প পরিমাণে কর্নফ্লাওয়ার অথবা ময়দা লাগিয়ে কেকের মিশ্রণের সাথে যোগ করুন।

এরপর আপনি কিরকম কেকের আকার চান, সে অনুযায়ী পাত্রে বা প্যানে  উপাদান গুলো ঢেলে নিন।  অবশ্যই পাত্রের ভিতর মাখন বা তেল মেখে নিবেন,  এতে করে পাত্রে কেকের উপরিভাগ বা তলের ভাত পুড়া লাগবেনা। 

এবার একটি সসপ্যান নিন।  এরপর গ্যাসের চুলায় স্টান্ডে অথবা যে কোন স্টিল বা লোহার স্ট্যান্ড প্যানের উপর বসিয়ে দিন। এবং মাঝারি আছে প্যানকেকটি একটি গরম করুন।

প্রায় আধা ঘন্টা বা ২৯ মিনিট অতিবাহিত হওয়ার পরে, একটি টুথপিক বা সূচালো আকৃতির কাঠি দিয়ে কেকের মধ্যভাগে চেপে ধরে চেক করে দেখুন কেক হয়েছে কিনা।  আরও শক্ত ও সিদ্ধ করতে চাইলে পাঁচ থেকে দশ মিনিটের মতো চুলার তাপমাত্রা লো ধাচে  জ্বালতে থাকুন।  এরপর পুনরায় চেক করুন।

অতঃপর চুলা থেকে কেকগুলি সরান এবং প্রায় ১০ মিনিটের জন্য প্যানকেক ঠান্ডা হতে দিন। এরপর মৃদু গরম তাপমাত্রায় সুস্বাদু কেক পরিবেশন করুন।

কেক রেসিপি ডেকোরেশন করার পদ্ধতি

কেক রেসিপি কে আরো সুস্বাদু করে পরিবেশন করার জন্য,  সাথে বাটার জাতীয় ক্রিম বাজার থেকে ক্রয় করে মিক্স করে খেতে পারেন। 

 বাটারের সাথে, ময়দার তৈরি কেক রেসিপি পরিবেশন যেন, আপনাকে এক অতুলনীয় আনন্দের মুহূর্ত এনে দিবে।

সুস্বাদু ময়দার কেক তৈরি করুন নিজেই
সুস্বাদু ময়দার কেক তৈরি করুন নিজেই

অতঃপর উল্লেখিত নির্দেশনা মোতাবেক তৈরি হওয়া একটি এক থেকে দুই জন পরিত্রভাবে,  অথবা পাঁচ থেকে ছয় জন হালকা খাবার হিসেবে  perfect ভাবে খেতে পারেন।

কেক বানানোর রেসিপি স্পেশাল টিপস

তরল দুধের পরিবর্তে গুড়া পাউডার দুধট গরম পানিতে মিশিয়ে ফুটিয়ে নিতে পারেন। এবং ভ্যানিলা এসেন্স ঘরোয়া ভাবে তৈরি করতে না পারলে নিকটস্থ দোকান থেকে কিনে আনবেন।  যাহোক,  আশা করি স্বল্প খরচে ঘরোয়া ভাবে কেক বানানোর রেসিপি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন। হ্যাপি কেক ডে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *