How to

ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো? সেরা সফটওয়্যার কোনটি

টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো? অদ্য আর্টিকেলটিতে
কিভাবে টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় নিবন্ধ লেখা হয়েছে।

টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো

বর্তমান সময়ের বহুল প্রচলিত জনপ্রিয় মোবাইল ভিত্তিক অ্যাপস হলো: টিকটক। যদিও এটি মোবাইল নির্ভর অ্যাপ, তবে আপনি চাইলে, পিসিতে যেকোন ব্রাউজার ব্যবহার করেও টিকটক ভিডিও গুলো দেখতে পারবেন

অনেকেই বলে থাকেন, রাতারাতি নিজেকে জনপ্রিয় সেলিব্রেটি বানানোর সহজ উপায় হচ্ছে: টিকটক। বিভিন্ন মজার ছলে-বলে এবং কৌশলে নিজের প্রতিভাকে কাজে লাগিয়ে ভাইরাল হয়ে অনেকেই একজন টিকটকার আর্টিস্ট হিসেবে বিশ্বের বুকে পরিচিত মুখ হয়ে যাচ্ছে।

  • একটি ছোট্ট অনুরোধ! আপনি নামায পড়েছেন তো? ”মিফতাহুল জান্নাতুস সালাত” নিশ্চয়ই জান্নাতের চাবিকাঠি হলোঃ নামায ।
  • একটি ছোট্ট পরামর্শ! নিজে নামায পড়ুন, অন্যকে নামায পড়ার জন্য – “ নামায বিষয়ে TikTok Video তৈরি করে উৎসাহিত করুন” ধন্যবাদ!

ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো? জনপ্রিয় টিকটকারদের সেরা ভিডিও মেকিং সফটওয়্যার কোনটি এবং বিভিন্ন ফানি ভয়েস ব্যবহার করে কিভাবে টিকটক ভিডিও তৈরি করবেন, সে বিষয়েই এখনকার আলোচনা চলবে।

কিভাবে টিকটক একাউন্ট তৈরি করবো?

কিভাবে টিকটক একাউন্ট তৈরি করবেন? নিচের তিনটি ধাপসমূহ অনুসরণ টিকটকে ফ্রিতে রেজিষ্ট্রেশন করুন:

  • ১) সর্বপ্রথম গুগল প্লে স্টোর (Android) অথবা অ্যাপলস্টোর (iPhone) থেকে জনপ্রিয় টিকটক অ্যাপটি আপনার ডিভাইসে সহজেই ইনস্টল করে নিন।
  • ২) এরপর অ্যাকাউন্ট তৈরি করার জন্য – প্রথমে এপসটির স্ক্রিনের নিচের দিকে আপনার হাতের ডান পাশে ”মানুষের মাথার মত দেখতে” প্রোফাইল আইকনে ক্লিক করুন।
  • ৩) অতপর, আপনার পছন্দ মতো ফেসবুক, গুগল, টুইটার যেকোন একটি ব্যবহার কর একাউন্ট তৈরি করুন।

আপনি চাইলে, আপনার মোবাইল নাম্বারের মাধ্যমেও একাউন্ট খুলতে পারেন, সেজন্য: প্রথমে আপনার দেশ বা কান্ট্রি সিলেক্ট করে- মোবাইল নাম্বারটি প্রদান করুন। তারপর আপনার মেসেজ ইনবক্সে আসা ওটিপি (OTP Code) কোডটি বসান। তাহলেই আপনার একাউন্ট তৈরি করা হয়ে যাবে। ব্যস!

আপনি চাইলে, ইমেইল আইডির মাধ্যমেও রেজিষ্ট্রেশন করতে পারেন। সেজন্য আপনার ইমেইল আইডিটি প্রদান করার পর, জিমেইল/ইমেইল ইনবক্স থেকে ভেরিফিকেশন কোডটি বসান। ব্যস! সহজেই একাউন্ট তৈরি করা হয়ে গেলো।

  • আপনাকে স্বাগতম! কারণ আপনি এখন থেকে টিকটক ওয়াল্ডের সাথে বিনোদনমূলক নানা রকমের ভিডিও শর্ট উপভোগ করতে পারবেন।

কিভাবে টিকটক ভিডিও তৈরি করবো

এপসটির মাধ্যমে আপনি ১৫ সেকেন্ড থেকে সর্বোচ্চ ৬০ সেকেন্ড (১ মিনিট) -এর ভিডিও তৈরি করতে পারবেন। সুতরাং কিভাবে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবেন, সেবিষয়ে আলোচনা শুরু করা যাক:

টিকটক ভিডিও তৈরি করার জন্য নিচের আসন্ন ধাপগুলো অনুসরণ করুন:

  • ১) প্রথমে স্ক্রিনের নিচে থাকা (মাঝ বরাবর) ‘+’ বাটনটিতে চাপুন।
  • ২) এরপর যদি ভিডিও সরাসরি রেকর্ড করতে চান, তাহলে স্ক্রিনের উপরে থাকা ”পিক এ সাউন্ড”/”Sound A Pic” অপশনে ক্লিক করে বিভিন্নরকমের ইফেক্টটিভ সাউন্ড এবং মিউজিক (Music) এড করুন।
  • ৩) তারপর মিউজিকটি আপনার পছন্দমতো নির্বাচন করুন, এবং কাট (Cut) করুন।
  • ৪) এরপর আপনার পছন্দমতো মিউজিকের সাথে বিভিন্ন ইফেক্ট যোগ করুন।
  • ৫) ভিডিও মোশন নির্ধারণ করুন, অর্থাৎ – স্লো মোশন, স্পিড মোশন ইত্যাদি কাজ সম্পূর্ণ করুন। এবং প্রয়োজনীয় ফিচার যুক্ত করুন।
  • ৬) এবং সবকিছু ঠিকঠাক হলে, শর্ট ভিডিওটি পোষ্ট করুন। ব্যস!

অভিনন্দন! আপনি টিকটকে প্রথম ভিডিও তৈরি করতে সফল হয়েছেন। এবার আপনার ভিডিওগুলো আপনার পরিচিত বন্ধ-বান্ধবের সাথে শোস্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করুন, যাতে করে আপনার ভিডিওর ভ্যালু বৃদ্ধি পায়।

কিভাবে টিকটকে ডুয়েট ভিডিও তৈরি করবো?

ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো সেরা সফটওয়্যার কোনটি
ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো সেরা সফটওয়্যার কোনটি

সম্প্রতি ডুয়েট ভিডিও টিকটক, লাইকিসহ বিভিন্ন শর্ট ভিডিও প্লাটফর্মে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। তাই চলুন জেনে নেওয়া যাক: কিভাবে ডুয়েট ভিডিও বানাবেন।

ডুয়েট ভিডিও তৈরির ধাপসমূহ:

  • ১) প্রথমে টিকটকের সার্চ বক্স থেকে আপনার পছন্দের ভিডিও চরিত্র/ক্যারেক্টারটি নির্বাচন করুন।
  • ২) এবং শেয়ার বাটনে ক্লিক করে, ডুয়েট অপশন নির্বাচন করুন।
  • ৩) কিছুক্ষণ অপেক্ষা করার পর, রেকর্ডিং অপশন পাবেন।
  • ৪) ফ্রন্ট ক্যামেরা বা রিয়ার” এর মাধ্যমে বোবা অভিনয়টি মুখ নাড়িয়ে নাড়িয়ে রেকর্ড করুন। বা শরীরের অঙ্গ-ভঙ্গি করুন।
  • ৫) নির্দিষ্ট কোন জনপ্রিয় টিকটক শর্ট ভিডিও তে অভিনয় করতে চাইলে, ভিডিও নির্বাচন করার পর, ঘড়ি (Clock icon) আইকনে ক্লিক করুন।
  • ৬) অতপর ডায়লগ নির্বাচন করে, Tap to shoot এ ক্লিক করুন। এবং নিজের ডায়লগটি বসিয়ে দিন।

স্বাগতম! কিভাবে টিকটক ডুয়েট ভিডিও বানাবো? আপনি সেবিষয়ে ভালো অভিজ্ঞতাসম্পন্ন জ্ঞান অর্জন করেছেন।

জিও ফোনে কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো

জিও ফোনে সাধারণত টিকটক ইনস্টল করার এক্সেস নেই। কিন্তু আপনি চাইলে, গুগল ক্রোম ব্রাউজার, অপেরা মিনি, বা যেকোন ব্রাউজারে সার্চ করে TikTok Web Version এর মাধ্যমে টিকটক ভিডিও উপভোগ করতে পারবেন। তাছাড়া, আপনি ইউটিউব এবং ফেসবুকে প্রচুর পরিমাণে TikTok Shorts Videos ( টিকটক শর্ট ভিডিও ) পেতে পারেন।

ছবি দিয়ে কিভাবে টিকটক ভিডিও বানাবো

ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও বানাবেন কিভাবে -সহজ পদ্ধতিতে টিক টক ভিডিও মেকিং করুন
ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও বানাবেন কিভাবে -সহজ পদ্ধতিতে টিক টক ভিডিও মেকিং করুন

ছবি দিয়ে কিভাবে টিকটক ভিডিও তৈরি করবো? ফটো দিয়ে টিকটকের জন্য কনটেন্ট মেকিং করার জন্য, SlideShow Maker, FotoPlay – Video Maker and Photo SlideShow এবং VivaVideo ইত্যাদির মত জনপ্রিয় অ্যাপসগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

টিকটক ভিডিও করার সফটওয়্যার

প্রফেশনানী টিকটক ভিডিও তৈরি করার জন্য আপনি প্লে স্টোর বা অ্যাপস্টোর থেকে নিম্নে উল্লিখিত – টিকটক ভিডিও করার সফটওয়্যার ইনস্টল করতে পারেন।

সর্বাপেক্ষা সেরা রেজুলেশনে টিকটক ভিডিও করার সফটওয়্যার নামঃ Photo Video Maker, VideoShow (ভিডিওশো), Video.Guru (ভিডিও.গুরু), Music Video Maker: SlideShow (স্লাইডশো), Photo Video Maker – App Holdings, Photo SlideShow (ফটো স্লাইডশো) – by Cy*bertech Infosoft ইত্যাদি।

টিকটক থেকে কিভাবে আয় করবো

টিকটক থেকে কয়েকটি উপায়ে ইনকাম করা যায়: লাইভ স্ট্রিমিং করে টিকটক থেকে ইনকাম করতে পারবেন। কনটেস্টে অংশগ্রহণ করে টিকটকে আয় করতে পারবেন। গিফটের মাধ্যমে, স্পন্সরশী করে, প্রোডাক্ট বা সার্ভিস প্রমোশন করে, রেফার করে, সিপিএ বা অ্যাফিলিয়ে মার্কেটিং করাসহ বিভিন্ন উপায়ে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

টিকটক কিভাবে আয় করে

পোষ্টটিতে: ছবি দিয়ে টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো? সেরা সফটওয়্যার কোনটি? সে বিষয়ে আমি আলোচনা করলাম, এবং আপনি কিভাবে টিকটক থেকে টাকা ইনকাম করবেন, সেবিষয়ে বলেছি। কিন্তু আপনার মনে প্রশ্ন আসতেই পারে যে:

টিকটক কিভাবে আয় করে? অর্থাৎ, টিকটক কোম্পানীর রেভিনিউ প্রফিট আসে কিভাবে? উত্তরঃ টিকটক কোম্পানী বিভিন্ন স্পন্সর, এডভার্টাইজমেন্টসহ বিভিন্ন সার্ভিস প্রমোট, কোকি সেল এবং প্রোফাইল পেইড প্রমোশনসহ আরো কয়েকটি উপায়ে আয় করে।

টিকটক ভিডিও তৈরি করার সর্বশেষ কথাঃ

সম্প্রতি বাংলাদেশ, পার্শপ্রতিবেশি দেশ: ভারত, শ্রীলঙ্কা, নিকটতম দেশ পাকিস্তানসহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের আনাচে কানাচে টিকটক, লাইকির মত প্লাটফর্মগুলো জনপ্রিয় হয়ে গেছে। এজন্য অবশ্য ইউজারদের অবদান সবচেয়ে বেশি। আপনি, আমি যদি টিকটক ব্যবহার না করতাম। তাহলে কি এই অ্যাপগুলো এতটা জনপ্রিয়তা পেতো, কখনই না।

  • কিন্তু সবকিছুর যেমন, ভালো দিক রয়েছে। তেমনি মন্দ দিক’ও রয়েছে।

ইদানিং যেমনটা দেখতে পাচ্ছি: টিকটক, লাইকির মত অ্যাপসগুলোতে উঠতি বয়সি ছেলে-মেয়েসহ বয়সভেদে কমবেশি সকলেই ঝুকছে। এবং রাতারাতি জনপ্রিয় হওয়ার জন্য – অর্ধ-উলঙ্গ হয়ে নিজের দেহ দুলান দেখাচ্ছে। যেগুলো সামাজিক , চারিত্রিক, মানসিক এবং ধর্মীয় অন্যায় কাজের শামিল। পরকালে – আমাদের সকলকেই কৃতকর্মের জবাবদিহি করতে হবে। সেদিনের জন্য- প্রস্তুত তো আপনি?

যাহোক,
টিকটক ভিডিও কিভাবে বানাবো ২০২২? এর প্রশ্নের বিস্তারিত উত্তর আপনি নিয়মিত টিকটক ব্যবহার করলে, ঘাটাঘাটি করলেই সহজে বুঝতে পারবেন। কারণ, আমি যেই টিউটোরিয়ালটি দেখালাম, টিকটকের নিয়মিত আপডেটের ফলে- কিছুদিন পর হয়তো: নিয়মগুলো পরিবর্তন’ও হতে পারে। সুতরাং টিকটক তারকা হতে- আজই চেষ্টা করুন। নিজেকে ভালোবাসুন, দেশকে এবং দেশের মানুষকে ভালোবাসুন।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button