রান্নার রেসিপি

আমের আচার রেসিপি – টক, ঝাল, মিষ্টি আম চাটনি বানানো শিখুন

আচার হলো একটি মুখরোচক খাবার। এই আচারের মধ্যে অন্যতম হলো আমের আচার রেসিপি। এটি দেখলেই হয়তো আপনার জিভে জল এসে যায়। ঘরে থাকা উপকরণ দিয়েই খুব সহজে তৈরি করে ফেলতে পারেন অতুলনীয় স্বাদের এই আচার। এটি প্রস্তুত করা খুবই সহজ একটি ব্যাপার। অল্প খরচে কিভাবে এই আচার বানাবেন এবং সেই সাথে  সকল টিপস এন্ড ট্রিকস গুলো জানতে হলে আর্টিকেল টিতে চোঁখ রাখুন।

আমের আচার রেসিপি

  • প্রস্তুতির সময় :40 মিনিট
  • রান্নার সময় : 40 মিনিট
  • অন্যন্য সময় : 10 মিনিট

মোট সময় :1 ঘন্টা 30 মিনিট

পরিবেশন যোগ্য : ১ – ২ জন, ৫ জন, ১০ জন ।

  • রান্নার পদ্ধতি : সিদ্ধ করণ, কষানো।
  • রন্ধন প্রণালী : বাঙালি, ভারতীয়।
  • রন্ধন ঝামেলা : মুটামুটি সহজ।
  • প্রস্তুতের উপযুক্ত সময় : গ্রীষ্মকাল।
  • উত্তম আবহাওয়া : রৌদ্রের মৌসুম।
  1. আহারের উত্তম সময় : সকালের নাস্তা (ব্রেকফাস্ট), বিকালে নাস্তা (স্ন্যাক)
  2. খাবারের স্বাদ : ঝাল, মিষ্টি, টক, ।

আমের আচার তৈরির উপাদান সমূহ

  • ২ কেজি কাচা আম
  • ১ চামচ টালা ধনিয়ার গুড়া
  • ১ চামচ টালা সরিষার বাটা
  • ২ চামচ টালা পাঁচপোড়নের গুড়া
  • ৬-৭ টা  টেলে নেয়া শুকনা মরিচ ফাকি
  • ১ চামচ আদা বাটা
  • ১ চামচ রসুন বাটা
  • ২ কাপ সরিষার তেল
  • ৩ কাপ চিনি
  • ৩ টা তেজপাতা
  • ৩-৪ টা এলাচ
  • ২-৩ টুকরো দারুচিনি
  • আস্ত রসুনের কোয়া কুচি হাফ কাপ
  • সিরকা এক চামচ

আমের আচার প্রস্তুত প্রণালি

(Amer Achar recipe) রোদে শুকানোর ঝামেলা ছাড়াই আমের টক,ঝাল,মিষ্টি আচারের রেসিপি।
(Amer Achar recipe) রোদে শুকানোর ঝামেলা ছাড়াই আমের টক,ঝাল,মিষ্টি আচারের রেসিপি।

রোদে দেয়ার ঝামেলা ছাড়াই সুস্বাদু আমের আচার রেসিপি প্রস্তুতের জন্য, প্রথমে আপনি আম গুলোকে যে সাইজের করে আচার বানাতে চান। সেই রকম স্টাইলে কেটে নিবেন।

আম কাটার সাথে সাথে লবনের পানিতে ডুবিয়ে রাখুন। এতে করে আমের কষের কারণে আম গুলো উপর থেকে কালো হয়ে যাবে না। কারণ আম কালো হয়ে গেলে আচার দেখতে মোটেই ভালো লাগে না।

এরপর আম গুলোকে ভালো ভাবে ধুয়ে পানি থেকে একটি চালুনে উঠিয়ে রাখুন। যাতে করে সম্পূর্ণ পানি আম থেকে ঝরে যায়। এতে করে আচার বানানোর সময় বেশি পানি উঠবে না।

এখন আচার প্রস্তুত করার জন্য চুলায় একটি পাত্র বসিয়ে দেন। এবং আম গুলোকে আগে থেকে একটু সিদ্ধ করে নিবেন। তবে বেশি সিদ্ধ করতে যাবেন না।

আম সিদ্ধ করা হয়ে গেলে এগুলোকে অন্য একটি পাত্রে ঢেলে নেন। এখন ২ কাপ সরিষার তেল দিয়ে দিতে হবে। তেল টা সামান্য গরম হয়ে এলে,  হাফ কাপ রসুনের কুচি, তেজপাতা, এলাচ এবং দারুচিনি দিতে হবে।

এইবারে এই রসুন গুলোকে নেড়ে চেড়ে ভেজে নিতে হবে। তবে বেশি ভাজতে যাবেন না। এতে করে রসুন পুড়ে যেতে পারে। হালকা বাদামি রং হয়ে এলে দিয়ে দিতে হবে এক চামচ আদা বাটা এবং ১ চামচ রসুন বাটা।

এরপর এই সব গুলো উপকরণ কে ভালো ভাবে নেড়ে চেড়ে একটু কষিয়ে নিতে হবে। এখন দিতে হবে সিদ্ধ করে রাখা আম গুলো। এইবারে আবার সব উপকরণ নেড়ে চেড়ে মিশিয়ে আম গুলো হালকা ভাবে ভেজে নিতে হবে।

আরও পড়ুন ;  কেক বানানোর রেসিপি। সুস্বাদু ময়দার কেক তৈরি করুন নিজেই।

যখন দেখবেন আম থেকে বেরিয়ে আসা পানি শুকিয়ে গেছে, তখনি দিয়ে দিতে হবে ৩ কাপের মতো চিনি। আপনি আপনার পছন্দ মতো চিনি বাড়িয়ে কিংবা কমিয়ে দিতে পারেন। আমি আচারে লবন পছন্দ করি না। তাই দেই নি, তবে আপনি চাইলে দিতে পারেণ।

এখন দিয়ে দিতে হবে এক চামচ টালা ধনিয়া গুড়া, শুকনা মরিচের ফাকি এবং সরিষা বাটা। এবারে আবারও সব  গুলো উপকরণ গুলোকে নেড়ে চেড়ে মিশিয়ে জ্বাল করতে হবে। এই পর্যায়ে হাই হিটে জ্বাল করতে যাবেন না।

এতে করে পুড়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর পুড়ে গেলে তিক্ত হয়ে যাবে।  তাই মিডিয়াম আচে জ্বাল করে চিনি গলে যে পানি বেরিয়ে এসেছে সেটা শুকিয়ে নিবেন। আর একটু পর পর নাড়তে থাকুন। সেই জন্য সাবধানতা অবলম্বন করবেন।

সহজে আমের আচার রেসিপি শিখুন
সহজে আমের আচার রেসিপি শিখুন

পানি শুকিয়ে গেলে দিয়ে দিতে হবে এক চামচ সিরকা এবং পাঁচ পোড়ন। এখন এই সব গুলো উপকরণ কে ভালো ভাবে নাড়ানি দিয়ে নেড়ে চেড়ে সব খানে মিশিয়ে নিতে হবে। আর ইতো মধ্যে তৈরি হয়ে গেলো আপনার আমার পছন্দের সুস্বাদু এবং স্বাস্থ্যকর আমের আচার রেসিপি।

আমি এখানে এক ধরনের আমে আচার শেয়ার করেছি। তবে আপনি এই রেসিপি ফলো করে যে কোনো ধরণের আমের আচার প্রস্তুত করতে পারেন। হয়তো কোথাও মশলা ব্যবহার করা হয়। আবার কোথাও ব্যবহৃত হয়না।

অতঃপর চুলা থেকে আমের আচার নামিয়ে নিন। ঠান্ডা হওয়ার জন্য ১০ মিনিটের জন্য রেস্টে রাখুন। এবং ঠান্ডা হওয়ার পর দীর্ঘ দিন ভালো রাখার জন্য কাচের বয়াম ব্যবহার করুন। সেই সাথে আপনার যখন খুশি উপভোগ করুন।

আমের আচার রেসিপি পরিবেশন পদ্ধতি

আপনি চাইলে, সুস্বাদু এই আমের আচার রেসিপি কে আরো বেশি আর্কষনীয় এবং স্বাস্থ্যকর নাশতা হিসেবে পরিবেশন করার জন্য পাউরুটির সাথে জ্যাম করে খেতে পারেন। কিংবা আটার রুটি, মুড়ি ও সাথে দিতে পারেন। আবার ভাতের সাথেও আমের চাটনি পরিবেশন করতে পারেন। ভারতীয়দের কাছে, প্রাচীনকাল থেকেই গরম ভাতের সাথে আমের আচারের চাটনি বেশ জনপ্রিয় রেসিপি হিসেবে প্রচলিত।

ঝটপট আমের জেলির সাথে পাউরুটি দিয়ে আপনার বাচ্চার টিফিনের কাজ টিকেও সেরে ফেলতে পারবেন। কারণ, বাচ্চারা ফাস্টফুড জাতীয় খাবার খুবই ভালোবাসে। সুতরাং ঘরোয়াভাবে স্বাস্থ্যকর এই আমের আচার রেসিপি বা চাটনি জেলির সাথে তাকে সুস্বাদু টিফিনের আনন্দ দিতে পারেন। আবার আমের তেলের আচার এর সাথে খিচুড়ি পরিবেশন করতে পারেন। 

অতঃপর উল্লেখিত নির্দেশনা মোতাবেক তৈরি হওয়া আমের আচার পরিবারের সবাই মিলে আনন্দের মুহূর্তে কিংবা আপনার মন মতো যেকোন সময়ে মুখরোচক খাবার হিসেবে  perfect ভাবে খেতে পারেন।

আমের আচার রেসিপি তৈরির স্পেশাল টিপস

আপনি চাইলে চিনির পরিবর্তে গুড় ও ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আচারের রং টা আরো সুন্দর আসবে। যদি জ্বাল পছন্দ না করেন তবে মরিচ বাদ দিয়ে দিতে পারেন। এবং আম আগে থেকে সিদ্ধ না করে। সরাসরি কষিয়ে সম্পন্ন আমের আচার  রেসিপি প্রস্তুত করতে পারেন। যাই হোক, আশা করি কম খরচে ঘরোয়া ভাবে আচার তৈরির রেসিপি সম্পর্কে জানতে পেরেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *